Aim & Objective

সংগঠনের নামকরণ

  • এই সংগঠনের নামকরণ হবে "কান্ট্রি ক্লাব এন্ড লাইব্রেরী" (একটি অরাজনৈতিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন)।

সংগঠনটির স্থায়ী ঠিকানা

  • গ্রামঃ দাফাদার পাড়া, ডাকঘরঃ দেবনগর, উপজেলাঃ তেঁতুলিয়া, জেলাঃ পঞ্চগড়।

সংগঠনের কর্ম এলাকা

  • সংগঠনের কর্ম এলাকা সমগ্র তেঁতুলিয়া উপজেলা হিসেবে গণ্য হবে। তবে কার্যকরী পরিষদের সিদ্ধান্ত স্বাপেক্ষে স্বেচ্ছাসেবীর ভিত্তিতে সমগ্র বাংলাদেশে কর্মকান্ড পরিচালনা করা যাবে।

সংগঠনের প্রকৃতি

  • ইহা একটি অরাজনৈতিক, অসাম্প্রদায়িক, স্বেচ্ছাসেবী, সমাজকল্যানমূলক সংগঠন হিসেবে গণ্য হবে। তেঁতুলিয়া উপজেলা সহ সারা দেশের জনগনের বিশেষ করে প্রতিবন্ধি, পথশিশু, এতিম, বিধবা, ভূমিহীন সর্বোপরি সুবিধা বঞ্চিত এবং অনগ্রসর জনগোষ্ঠী এই সংগঠনের লক্ষ্যভূক্ত জনগোষ্ঠী হিসেবে বিবেচিত হবে এবং তাদের কল্যাণার্থে বিভিন্ন কর্মকান্ড পরিচালনা করা হবে।

সংগঠনের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য

  • ‘‘কান্ট্রি ক্লাব এন্ড লাইব্রেরী’’ এর মূল লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য হচ্ছে, বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের অনগ্রসর জনগোষ্ঠিকে সাম্যের ভিত্তিতে শিক্ষা, সেবা ইত্যাদি প্রদানের মাধ্যমে সমৃদ্ধশালী জনগোষ্ঠীতে রুপান্তরের নিমিত্তে ডিজিটাল পদ্ধতি ব্যবহার করে নিন্মোক্ত সমাজকল্যাণ মূলক কর্মকান্ড বাস্তবায়ন করা
  • ভবিষ্যত প্রজন্মকে স্বাধীনতার চেতনায় উদ্ধুদ্ধ করনের জন্য স্বাধীনতার সঠিক ইতিহাস তাদের নিকট তুলে ধরে দেশপ্রেম জাগ্রত করার জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ।
  • ক্লাবের সদস্য, এলাকার জনগোষ্ঠী, বিশেষ করে শিশুদের সমাজের আদর্শ নাগরিক হিসেবে গড়ে তোলার নিমিত্তে সুষ্ঠ সামাজিক মূল্যবোধ ও চেতনা জাগ্রত করা।
  • প্রতিবন্ধী, দুঃস্থ ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর মেধা অন্বেষণে বিভিন্ন খেলাধুলা, ছবি আঁকা, কবিতা আবৃত্তি, নৃত্য ইত্যাদি কার্যক্রম পরিচালনা করে যোগ্যতা ভিত্তিক কর্মসংস্থান ও পুনঃবাসনের ব্যবস্থা করা।
  • বিভিন্ন বিষয়ে জ্ঞানার্জনের পরিবেশ সৃষ্টির লক্ষ্যে আধুনিক লাইব্রেরীর ব্যবস্থা করা ।
  • শিশুসহ সকল বয়সী জনগনের জন্য সাধারণ শিষ্ঠাচার, ধর্মীয় (আল-কায়দা, কুরআন) ও নৈতিক শিক্ষা প্রদানের ব্যবস্থা করা।
  • নারীর অধিকার রক্ষা ও ক্ষমতায়নের নিমিত্তে হস্তশিল্প/কুটিরশিল্প ও বিভিন্ন ক্ষুদ্র শিল্প প্রকল্প গ্রহণের মাধ্যমে তাদের স্বাবলম্বী করে গড়ে তোলা।
  • কম্পিউটার ও ইন্টারনেট শিক্ষার ব্যবস্থা রাখা এবং ভিডিও প্রজেক্টরের মাধমে বিভিন্ন সামাজিক ছবি/ ডকুমেন্টারী প্রদর্শন করা।
  • ইন্টারনেটের মাধ্যমে দূরশিক্ষণ (Distance Learning) প্রযুক্তি ব্যবহার করে দেশ বিদেশের অভিজ্ঞ প্রশিক্ষক/ দক্ষ ব্যক্তি /গুনিজনের দ্বারা বিভিন্ন বিষয়ে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে প্রেষণা/প্রশিক্ষণ প্রদান।
  • শিশু ও যুবকদের মানসিক ও শারীরিক উন্নতি বিধানের জন্য খেলাধুলা ও চিত্তবিনোদনের পাশাপাশি তাদের বিভিন্ন বিষয়ে দক্ষ এবং যোগ্য করে গড়ে তোলার লক্ষ্যে কম্পিউটার ক্লাব, ড্রাইভিং ক্লাব, সাঁতার ক্লাব ইত্যাদির ব্যবস্থা করা।
  • কৃতি শিক্ষার্থী, খেলোয়াড় ও গুনীব্যক্তিদের সংবর্ধনা প্রদান এবং তাদের স্মৃতি রক্ষা করা।
  • বিশ্ব পরিবেশ রক্ষা তথা গ্রীনওয়ার্ল্ড তৈরীতে ছোট ছোট শিশুদের দ্বারা বৃক্ষরোপন কর্মসূচী পালন করা এবং প্রাকৃতিক জীব বৈচিত্র ও পরিবেশগত সকল সম্পদ সুরক্ষার মনোভাব জাগ্রত করা।
  • সবার জন্য শিক্ষা, স্বাস্থ্য সচেতনতা, বিভিন্ন কুসংস্কার ও সামাজিক ব্যাধি হতে মুক্ত করতে শিশুদের অনুপ্রাণীত/প্রেষনা প্রদান করা।
  • সমাজকে মাদকাশক্তি এবং ধুমপানের কু-অভ্যাস হতে রক্ষার জন্য জনসচেতনতা গড়ে তোলার সাথে সাথে একটি আধুনিক মাদক নিরাময় ও পুনর্বাসন কেন্দ্র (Rehabilitation centre) স্থাপন করা।
  • সকল সামাজিক কুসংস্কার, যৌতুক প্রথা, বাল্য বিবাহ, নারী এবং শিশু পাচার ও নির্যাতন, বাধ্যতামূলক প্রাথমিক শিক্ষা, পরিবার পরিকল্পনাসহ বিভিন্ন বিষয়ে সচেতনতার লক্ষ্যে নিয়মিত সভা, সেমিনার ইত্যাদি আয়োজন করা।
  • প্রাকৃতিক যেকোন দুর্যোগ মোকাবেলায় এগিয়ে আসা এবং সরকারী ও বেসরকারী সংস্থা সমূহকে সহযোগীতাসহ দূর্যোগ কবলিত ব্যক্তি বা গোষ্ঠীকে পূনর্বাসনকল্পে স্বেচ্ছাসেবীদের প্রয়োজনীয় "দূর্যোগ ও ব্যবস্থাপনা" প্রশিক্ষণ প্রদান।
  • এলাকার সকল বয়সী জনগনের জন্য সংস্কৃতি চর্চার ব্যবস্থা করা এবং বয়সভেদে নিরক্ষর পুরুষ ও মহিলাদের নিরক্ষরতার অভিশাপ হতে মুক্ত করতে শিক্ষাদান কার্যক্রমের ব্যবস্থা গ্রহণ করা।
  • সমাজের অবস্থাপন্ন ব্যক্তিবর্গ কিংবা প্রতিষ্ঠিত/সুনামধন্য কোন প্রতিষ্ঠান কর্তৃক (সিএসআর কর্মসূচীর আওতায়) এই সংগঠনের লক্ষ্যভূক্ত জনগোষ্ঠীর কল্যানার্থে স্কুল, কলেজ, মসজিদ, মাদ্রাসা, বৃদ্ধাশ্রম ইত্যাদি প্রতিষ্ঠা করা।
  • সংগঠনের কর্ম এলাকার অবসরগামী বিভিন্ন সরকারী/বেসরকারী সংস্থা/প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা/কর্মচারী যারা নিজ নিজ কর্মক্ষেত্রে বিস্তর দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা অর্জন করেছেন তাদের জন্য যোগ্যতাভিত্তিক কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা।
  • দেশ বিদেশে অবস্থানরত সেচ্ছা সেবীর মনোভাব সম্পন্ন সমাজসেবক ব্যক্তিবর্গকে ডিজিটাল পদ্ধতিতে (ওয়েব, গ্রুপ মেইল, ভাইবার ইত্যাদি) একত্রিত করে পাইলট প্রকল্প হিসাবে নির্দিষ্ট এই এলাকার জনগোষ্ঠীর উন্নয়নে কাজ করে যাওয়া।
  • বিভিন্ন উন্নত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের শিক্ষা সফর, ক্যাম্পিং, পিকনিক ইত্যাদি আয়োজনের মাধ্যমে সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের সাথে তাদের সৌহার্দ্যপূর্ন সম্পর্কের বন্ধন সৃষ্টি করা।